আত্মশুদ্ধি অর্জনের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে আল্লাহ সুবহানহু তালা ৭ বার কসম করেছেন ।। আত্মশুদ্ধি অর্জনের গুরত্ব

আল্লাহ রব্বুল এলামই কুরআন আল কারীমে অনেক বিষয়ের গুরত্ব বুঝানোর জন্য বিভিন্ন সময়ে কসম করেছেন। অনেক জায়গায় তিনি একবার একটি বস্তুর নামে কসম করেছেন, আবার কখনো দুইবার শপত করেছেন, আবার কখনো তিনবার শপত করে একটি বিষয় বুঝিয়েছেন । কিন্তু একটা বিষয় বুঝাতে গিয়ে তিনি তাঁর সাতটি গুরত্বপূর্ণ সৃষ্টির নামে সাতবার কসম করেছেন। নিঃসন্দেহে আত্মশুদ্ধি অর্জনের গুরত্ব একজন মুমিনের কাছে অত্যান্ত গুরত্বপূর্ণ আসুন আমরা দেখি সেই বিষয় সম্পর্কে।
পবিত্র কালামুল্লাহ মাজিদের সূরা আস-শামসে আল্লাহ বলেন
أَعُوْذُ بِاللهِ مِنَ الشَّيْطَانِ الرَّجِيمِ
আমি বিতাড়িত শয়তান থেকে আল্লাহর কাচে আশ্রয় চাই।
بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

(1
وَالشَّمْسِ وَضُحَاهَا
শপথ সূর্যের ও তার কিরণের,
(2
وَالْقَمَرِ إِذَا تَلَاهَا
শপথ চন্দ্রের যখন তা সূর্যের পশ্চাতে আসে,
(3
وَالنَّهَارِ إِذَا جَلَّاهَا
শপথ দিবসের যখন সে সূর্যকে প্রখরভাবে প্রকাশ করে,
(4
وَاللَّيْلِ إِذَا يَغْشَاهَا
শপথ রাত্রির যখন সে সূর্যকে আচ্ছাদিত করে,
(5
وَالسَّمَاء وَمَا بَنَاهَا
শপথ আকাশের এবং যিনি তা নির্মাণ করেছেন, তাঁর।
(6
وَالْأَرْضِ وَمَا طَحَاهَا
শপথ পৃথিবীর এবং যিনি তা বিস্তৃত করেছেন, তাঁর
(7
وَنَفْسٍ وَمَا سَوَّاهَا
শপথ প্রাণের এবং যিনি তা সুবিন্যস্ত করেছেন,তাঁর

এখানে আল্লাহ সুবহানহু তালা শপত করেছেন সূর্যের, চন্দ্রের, দিবসে, রাত্রির, আকাশের, পৃথিবীর, প্রাণের এরপর তিনি যে বিষয়টা সম্পর্কে জানিয়েছেন তা হলো

(9
قَدْ أَفْلَحَ مَن زَكَّاهَا
যে নিজেকে শুদ্ধ করে, সেই সফলকাম হয়।

তাহলে আমরা বুঝতে পারই যে আল্লাহর সৃষ্টি জগতের মাঝে সেই একমাত্র সফলকাম যে নিজেকে সংশোধন করতে পারল। যে তার ভুল বুঝে এবং তা থেকে নিজেকে মুক্ত করে । আর যে ব্যক্তি নিজেকে সংশোধন করতে পারল না সে ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে গেলো । তাই একজন মুমিনের কাছে আত্মশুধি অর্জন করা ছাড়া আর কোনো গুরত্বপূর্ণ বিষয় থাকতে পারেনা । আল্লাহ রব্বুল আলামিন আমাদের আত্মশুদ্ধি অর্জন করে সফল হওয়ার তৌফিক দান করুন আমিন ।

[ বি: দ্র: লেখাটি শায়েখ আহমাদ উল্লাহর বক্তব্য থেকে নেয়া ]

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *