শুকরিয়া আদায়ের পুরষ্কার ও না আদায়ের পরিণতি ।। শোকর আদায়ের গুরত্ব

আল্লাহ রব্বু আলামিন তাঁর পবিত্র কালামে হাকিমে উল্লেখ করেন যে, ”তোমরা যদি কৃতজ্ঞতা আদায় কর তাহলে আমি অবশ্যই তোমাদেরকে আরও বাড়িয়ে দেব, আর যদি তোমরা অস্বীকার কর তাহলে আমার আজাব অবশ্যই কঠিন” । -সূরা ইবরাহীম (১৪) : ৭ আসুন আমরা এখন জানব শোকর আদায়ের গুরত্ব সম্পর্কে এই রকম একটা বিষয় আমরা দেখতে পাই বনি ইসরাইলের

নামাজী ৫ প্রকার- জেনে নিন আপনি কোন প্রকারের নামাজী

কুরআন এবং হাদিস গবেষণা করে আল্লামা ইমাম ইবনুল কায়্যুন (রাহেমাহুল্লাহ) তার আল-ওয়াবিলুস্ সাইয়্যিব নামক কিতাবে উল্লেখ করেছেন সালাত আদায় করতে গিয়ে মানুষ পাঁচ শ্রেণীতে ভিবক্ত হয়। ১. অনেক নামাজী এই রকম আছে যে নামায পড়ে কিন্তু নামাযের হুকুম আহকাম ও পবিত্রতা সম্পর্কে বেখেয়াল । নামাযের ভিতর যে ফরজ ওয়াজিব রয়েছে এগুলা যথা নিয়মে পালন করে

ইস্তেগফার করার গুরত্ব।। ৮টি সমষ্যার সমাধান ও একটি সাপ্রাইজ

আমরা আমাদের জীবনের বিভিন্ন সমস্যার সমক্ষিন হয়ে থাকি এবং এর সমাধান খুজতে থাকি। আল্লাহ সুবহানহু তালা আমাদের জীবনের প্রধান প্রধান যে সমস্যা রয়েছে আমরা প্রতিনিয়ত যে সমস্যাগুলোর সসমক্ষিন হই এ সমস্যাগুলোর সমাধান রেখছেন ইস্তেগফাআরের মাধ্যমে। এবং ইস্তেফারের মাধ্যমে অনেক আকর্ষনীয় পুরষ্কারের ব্যাবস্থা রেখছেন। আসুন আমরা এখন জানব ইস্তেগফারের মাধ্যমে আল্লাহ রব্বুল আলামিন যে ৮টি সসমষ্যার

আত্মশুদ্ধি অর্জনের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে আল্লাহ সুবহানহু তালা ৭ বার কসম করেছেন ।। আত্মশুদ্ধি অর্জনের গুরত্ব

আল্লাহ রব্বুল এলামই কুরআন আল কারীমে অনেক বিষয়ের গুরত্ব বুঝানোর জন্য বিভিন্ন সময়ে কসম করেছেন। অনেক জায়গায় তিনি একবার একটি বস্তুর নামে কসম করেছেন, আবার কখনো দুইবার শপত করেছেন, আবার কখনো তিনবার শপত করে একটি বিষয় বুঝিয়েছেন । কিন্তু একটা বিষয় বুঝাতে গিয়ে তিনি তাঁর সাতটি গুরত্বপূর্ণ সৃষ্টির নামে সাতবার কসম করেছেন। নিঃসন্দেহে আত্মশুদ্ধি অর্জনের

সফল মুমিনদের বৈশিষ্ঠ্য

এই দুনিয়াতে সফল হওয়ার জন্য আমরা কত উপায় খোজ করে থাকি কত মটিভেশনাল স্পিকার আমাদের কত উপায় বলে দেয় । কিন্তু দিন শেষে আমরা ব্যার্থতার গ্লানি নিয়েই ক্লান্ত হয়ে পড়ি । অথচ আমরা কি কখন দেখেছি যিনি সফলতা দেয়ার মালিক তিনি সফল হওয়ার জন্য আমাদের কি উপায় বলে দিয়েছেন ! আসুন আমরা এখন জানব সেই